অষ্টগ্রামে টিফিন কেক কেটে, দড়িতে ছবি ঝুলিয়ে বঙ্গবন্ধুুর দায়সারা জন্মদিন উদযাপন

0
591
ছবি: শতবর্ষী মহানায়কের জন্মদিনে টিফিন কেক কাটছেন বিদ‌্যালয় সংশ্লিষ্টরা

সর্বশেষ আপডেট 5 months আগে | নিউজ ভিশন ২৪

তোফায়েল আহমেদ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট: কিশোরগঞ্জের অষ্টগ্রামে শতবর্ষী মহানায়ক, কিংবদন্তী নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকীতে দায়সারা জন্মদিন উদযাপনের ঘটনা ঘটেছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুুজিবুর রহমান এরঁ জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে সারা দেশব্যাপী যখন জাকজমক আয়োজন তখন বুধবার (১৭ মার্চ) অষ্টগ্রামের কাস্তুল ইউনিয়নের এসইএসডিপি মডেল হাইস্কুল কর্তৃপক্ষ ব্ল্যাকবোর্ডে দড়িতে বঙ্গবন্ধুর ছবি ঝুলিয়ে, বঙ্গবন্ধুর নামের বানানে ভুল ও ছোট টিফিন কেক কেটে কুরুচিপূর্ণ জন্মদিন উদযাপন করেছে।

এমন উদ্ভট জন্মদিন উদযাপনে স্থানীয় এলাকাবাসীসহ সচেতন মহলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি ইতোমধ্যে ভাইরাল হয়েছে।

ছবি: ব‌্যানারের বদলে চকে ব্ল‌্যাকবোর্ডে জাতির পিতার নামের ভুল বানাান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ ঘটনায় ব্যাপক তোলপাড় ও ক্ষোভ প্রকাশ করছেন অনেকেই। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ছবিতে দেখা গেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুুর রহমান এরঁ নামের স্থলে “শেখ মজিবুর রহমান” লেখা হয়েছে। বর্তমান আধুনিক সময়ে ডিজিটাল ব্যানারের স্থলে চক দিয়ে ব্ল্যাকবোর্ডে লিখা জাতির পিতার নামের এমন ভুল বানান শতবর্ষে বঙ্গবন্ধুকে অবমাননার শামিল বলছেন স্থানীয় সচেতন মহল। অনুষ্ঠানের ছবিতে ছোট সাধারণ নগণ্য টিফিট কেক কাটতেও দেখা গেছে বিদ্যালয়টির পরিচালনা পর্ষদের সদস্যসহ শিক্ষকদের।

ছবি: দেয়ালে দড়িতে বঙ্গবন্ধুর ছবি ঝুলিয়ে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি রহিম মিয়া বক্তব‌্য দিচ্ছেন।

এ ঘটনায় স্থানীয় বাসিন্দা এমএইচ রোকনের সাথে কথা বললে তিনি জানান, বিদ্যালয়ের এমন দায়িত্বহীনভাবে জাতির পিতার জন্মদিন উদযাপন শুধু ন্যাক্কারজনকই নয় বরং বঙ্গবন্ধুকে অবমাননার শামিল এবং কুরুচির বহিঃপ্রকাশ। স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলেই বিকৃত রুচির পরিচয় বহন করে। স্থানীয় প্রশাসন এ বিষয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিবেন বলে আশা করি।

এ বিষয়ে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য রহিম মিয়ার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টির কোনো সদোত্তর দিতে পারেন নি। তিনি বলেন বঙ্গবন্ধুুর জন্মদিন পালনের অনুষ্ঠানটি হঠাৎ করেই আয়োজন করা হয়েছে। যার কারণে তেমন কোনো আয়োজন করতে পারি নি। বিষয়টি সংবাদমাধ্যমে না আনার কথাও বলেন তিনি।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিদ্যালয়টির সহকারী শিক্ষক আনোয়ারুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা অনুষ্ঠানটির আয়োজন করেছে। তাই ছোট পরিসরে এমন আয়োজনের মাধ্যমে দিনটি পালন করা হয়। জাতির পিতার জন্ম শতবার্ষিকীর আয়োজনে নামের বানানে ভুল, দড়িতে ছবি ঝুলানোর হয়েছে কেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি কোনো সদোত্তর দিতে পারেন নি।

এ ঘটনায় অষ্টগ্রাম উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি নজরুল ইসলাম সাগর নিউজ ভিশনকে জানান, বাঙ্গালী জাতির মহানায়ক, কিংবদন্তী নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এরঁ জন্মশত বার্ষিকীতে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এমন হীন আচরণ ও দায়িত্ব জ্ঞানহীনতা আমাদের মর্মাহত করেছে। এ ঘটনার দায় বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষকসহ পরিচালনা পর্ষদ কখনই এড়াতে পারেন না। এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট সকলকে উপযুক্ত বিচারের আওতায় আনার দাবিও জানান তিনি।

অষ্টগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান শহীদুুল ইসলাম জেমস জানান, বিষয়টি সত্যিই লজ্জাজনক। বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক সম্পূর্ণ অযোগ্য। যার প্রমান অনেকবার প্রমানিত। কিন্তু দলীয় নেতা বা অন্যরা কি করল? এ লজ্জা আমাদের সবার। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

অষ্টগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রফিকুল আলমের সাথে কথা বললে তিনি জানান, বিষয়টি আমি এখনও অবগত নই। তবে আমি বিষয়টির খোঁজ খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবো।

বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক আনোয়ারুল হক খানের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

এ ঘটনায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ পরিচালনা পর্ষদের অযোগ্য সদস্যদের অপসারণের দাবি জানান এলাকাবাসী।

 

 

 

মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন